পাকস্থলীর ক্যান্সার

Written by: moonlight


About : This author may not interusted to share anything with others

9 months ago | Date : November 11, 2016 | Category : ক্যান্সার | Comment : Leave a reply |

যে সমস্ত ক্যান্সার থেকে মানুষ সহজে মুক্তি পায় না অর্থৎ বেশির ভাগই মারা যায় তাদের মধ্যে পাকস্থলীর ক্যান্সার অন্যতম। কিন্তু এই রোগের প্রথমিক অবস্থায় যদি চিকিৎসা করা যায় অর্থৎ জানার সাথে সাথে যদি অপারেশনের মাধ্যমে আক্রান্ত স্থান ফেলে দিলে রোগ সর্ম্পূন রোপে ভালো হয়ে যায়।

পাকস্থলিতে ক্যান্সারের কারন…

বিভিন্ন কারনে পাকস্থলীতে ক্যান্সার হতে পারে। এই রোগটি সাধারনত ৪০ বছর বয়সের সময় বেশি হয়ে থাকে।নারীদের ছেয়ে পুরুষেরা এই রোগে আক্রান্ত হন বেশি।

পাকস্থলিতে ক্যান্সার হওয়ার কয়েকটি কারন নিম্মরোপঃ-

  • হেলিকোব্যাকটার পাইলোরি নামক এক ধরনের জীবানুর আক্রমনে।
  • যে সমস্ত খাবারে অধিক লবন আছে(সামুদ্রিক মাছ,অনেক দিন যাবৎ সংরক্ষিত টিনজাত খাবার)।
  • প্রচুর পরিমানে মদ্যপান।
  • যে সমস্ত খাবারেল এন-নাইট্রোয়াস কম্পাউন্ডস(N-nitrous Compounds) রয়েছে অথবা এন্টি-অক্সিডেন্ট এর অভাব রয়েছে।

তাছাড়া দূষিত পরিবিশে অনেক দিন ধরে বসাবস করলে এই রোগ হতে পারে।আবার কেউ কেউ মনেকরেন, বংশগত কারনও পাকেস্থলিতে ক্যান্সার হতে পারে।

প্রাথমিক অবস্থায় হজম ক্রিয়ায় গোলমাল অথবা খাদ্য গ্রহনের পাকাশয়ের প্রান্তভাগে অস্বস্তি অনুভূতি।খাওয়ার উপর রোচি আসেনা।এমন অবস্থায় রোগী তেমন গুরোত্ব দেয় না।তারা মনে করেন গ্যাসষ্ট্রিক হয়েছে।অনেক সময় দেখা যায় গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ খেলে কিছু সময় আরাম পাওয়া যায়।এই রোগ দীর্ঘ দিন থাকার ফলে শরীরের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে পড়ে।তখন কিছু লক্ষ্যন দেখা দেয়।

  • অল্প খেলেই তৃপ্তি চলে আসে।
  • ভমি ভমি ভাব হয়,অনেকাংশে ভমি হয়।
  • পেট ফেপে থাকে।
  • পেট ফুলে যায়।
  • রক্ত শূণ্যতা দেখা দেয়।
  • শরীরের ওজন কমে যায়।
  • খাদ্য গ্রহনে অন্ননালীতে ব্যথা অনুভব হয়।
  • ভমির সাথে রক্ত যেতে পারে।
  • কালো পায়খানা হতে পারে।

একসয় জাপানে পাকিস্থলীর ক্যান্সারের ফলে অনেক মানুষ মারা যেত।বর্তমনে চলিশোর্ধ বয়দের যে সব লোকের হজম ক্রিয়ায় গোলযোগ হচ্ছে তারা এন্ডোস্কোপি করে প্রথমিক অবস্থায় রোগ নির্নয়ের করে অপরেশনের মাধ্যমে চিকিৎসা করা যায়।

কিন্তু আমাদের দেশের রোগীরা যান যখন ক্যান্সার পাকস্থলীর বাহিরে ছড়িয়ে পরে।প্রথমিক অবস্থায় চিকিৎসার মাধ্যমে পাকস্থলীর ক্যান্সার সর্ম্পূন নিরাময় সম্ভব।

অধ্যাপক ডা. একেএম ফজলুল হক
বৃহদন্ত্র ও পায়ূপথ বিশেষজ্ঞ

লিখাটি আপনার কালেকশানে রাখার জন্য আপনার ফেজবুকে শেয়ার দিন

tags:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


↑ Top