অতি প্রয়োজন ছাড়া এন্টিবায়োটিক (Antibiotic) খাওয়া উচিৎ নয়

Written by: moonlight


About : This author may not interusted to share anything with others

2 years ago | Date : September 19, 2016 | Category : Features | Comment : Leave a reply |

antibioticএন্টিবায়োটিক অথবা জীবানু নাশক দিন দিন এর ক্ষমতা বা কার্যকারিতা বিলুপ্ত হচ্ছে। পেনিসিলিন পঞ্চাশের দশকে যতটা জীবানু ধ্বংস করত। বর্তমানে আর তেমন কাজ করেনা। তাই বাজারজাত হচ্ছে নিত্য নতুন জীবেনু নাশক ঔষধ। এতেও পাওয়া যাচ্ছেন আশানুরুপ ফল। রেজিস্ট্যান্স হয়ে পড়ছে  অনেক দামি দামি এন্টিবায়োটিক।

এন্টিবায়োটিক ব্যবহার কমান…

গবেষনায় দেখা গেছে যৌনরোগ, গনোরিয়ার জীবানু ধ্বংশে এবং গলায় ইনফেকশন ইত্যাদিতে এখন আর সাধারন এন্টিবায়োটিকে কাজ করছেনা। সমস্যা হচ্ছে এই যে অনেকে এন্টিবায়োটিকের ব্যবহার না যেনে ব্যবহার করেন।

যেমনঃ-ভাইরাসের ক্ষেত্রে এন্টিবায়োটিকের তেমন গুরুত্ব নেই। তাছাড়া সাধারন রোগে যেমন জ্বর, কাশ, সর্দি ইত্যাদিতে এন্টিবায়োটিক খাচ্ছেন এবং ডোজ অনুযায়ী নয় ইচ্ছা অনুযায়ী খাচ্ছেন। ব্যাকটেরিয়ার আক্রমনে দরকার এন্টিবায়োটিক সেখানেও কোর্স শেষ অনুযায়ী খাওয়া হচ্ছেনা। আপনার সমস্যার কথা চিকিৎকের কাছে খুলে বলুন। প্রয়োজন হলে চিকিৎসক আপনাকে এন্টিবায়োটিক দিবে, আপনি সেই অনুযায়ী সেবন করেন।

 

 

Save

Save

Save

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


↑ Top